হ্যালো রোহান

২৪ ঘন্টা ডট নিউজ। নিজস্ব প্রতিনিধি : করোনা ভাইরাসে চট্টগ্রাম মেডিকেলে মৃত্যুর গুজব ছড়ানো ভাইরাল হওয়া অডিও “হ্যালো রোহান”র মূল হোতা চিকিৎসক ও যুবদল নেতা ইফতেখার মোহাম্মদ আদনানকে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

গত ২১ মার্চ শনিবার সন্ধায় নগরীর পাঁচলাইশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে চিকিৎসক আদনানকে গ্রেফতারের পর পুলিশ ২২ মার্চ রবিবার দুপুরে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। মহানগর হাকিম আবু সালেহ মোহাম্মদ নোমানের আদালত শুনানি শেষে ইফতেখার মোহাম্মদ আদনানকে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) শাহাবুদ্দিন আহমদ। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) নিয়ে গুজব ছড়ানোর অপরাধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পাঁচলাইশ থানায় দায়েরকৃত একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে চিকিৎসক ও যুবদল নেতা ইফতেখার মোহাম্মদ আদনানকে রবিবার দুপুরে আদালতে আনা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচলাইশ থানা পুলিশের পক্ষ থেকে আদালতের কাছে ১০ দিনের রিমাণ্ড আবেদন করলে আদালত শুনানি শেষে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আরো খবর : হ্যালো রোহান শিরোনামে গুজব সৃষ্টির নায়ক চিকিৎসক আদনান গ্রেফতার

পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম ভূঁইয়া বলেন, করোনা ভাইরাসে বিশ্বব্যাপী আতংককে পুঁজি করে জনমনে ভীতি তৈরি করে সরকারকে বেকায়দায় ফেলার উদ্দেশ্যে ডা. ইফতেখার আদনান করোনায় মৃত্যুর মিথ্যা তথ্য সম্বলিত একটি অডিও ক্লিপ তৈরি করেন।

পরে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করা তার এক আত্মীয়ের মাধ্যমে সেই অডিও ক্লিপ ফেসবুক মেসেঞ্জারে ছড়িয়ে দেন। অডিও ক্লিপটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে পুলিশ তদন্তে নামে।

অবশেষে গত ২১ মার্চ শনিবার বিকেলে নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে চিকিৎসক আদনানের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। একই দিন মধ্যরাতে পাঁচলাইশ থানায় পুলিশ বাদি হয়ে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫, ৩১ ও ৩৫ ধারায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

ওই মামলায় চিকিৎসক ও যুবদল নেতা আদনানকে রবিবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয় এবং পুলিশের পক্ষ থেকে জিজ্ঞাসাবাদেও জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত শুনানী শেষে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

জানা যায়, চট্টগ্রাম নগরীর দুই নম্বর গেইট মেয়র গলিতে চিকিৎসক আদনানের বসবাস। তিনি বিএনপির (বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল) রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। সে চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক। ইউএসটিসি থেকে এমবিবিএস পাশ করে আদনান আবুল খায়ের গ্রুপ ও মেডিকেল সেন্টারে কর্মরত ছিলেন।

পুলিশ জানায়, গত ১৯ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ৩৫ সেকেন্ডের একটি অডিও ভাইরাল হয়। যেখানে টেলিফোনে রোহান নামে একজনকে সতর্ক করা হচ্ছিল। ওই অডিওতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কয়েকদিনে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৮ থেকে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

২৪ ঘন্টা/আর এস পি