করোনা : চট্টগ্রামে ২য় পুলিশ সদস্যের মৃত্যু/ মৃত্যুর পর মিলল আক্রান্ত হওয়ার তথ্য

২৪ ঘণ্টা ডট নিউজ। চট্টগ্রাম ডেস্ক : চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন সদর কোর্টে র জিআরও শাখায় কর্মরত পুলিশ কনস্টেবল মোখলেসুর রহমান (৫৭)। গত ১৯ মে মঙ্গলবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

মৃত্যুর পর করোনা পরীক্ষার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। গতকাল ২০ মে বুধবার রাতে জেলা সিভিল সার্জন সুত্রে প্রাপ্ত নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে মৃত পুলিশ সদস্যের করোনা পজেটিভ আসে।

তথ্যটি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম জেলা কোর্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত কোর্ট ইনস্পেকটর সুব্রত ব্যানার্জি গণমাধ্যমকে জানান, মৃত পুলিশ সদস্যের বাড়ি চাঁদপুর। সদর কোর্টের জিআরও শাখায় কর্মরত ছিলেন।

ব্যারাকে থাকা অবস্থায় কয়েকদিন ধরে তিনি জ্বর সর্দি ও করোনা উপসর্গে ভুগছিলেন। পরে খুব বেশি অসুস্থবোধ করলে ১৯ মে মঙ্গলবার রাতে তাকে চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। বুধবার ভোরে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

মৃত পুলিশ সদস্যের সহকর্মীদের কাছ থেকে জানা যায়, করোনা উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ হয়ে মারা যাবার পর মৃত পুলিশ সদস্য মোখলেসুর রহমানের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

বুধবার রাতের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট তার করোনা পজিটিভ আসে। রিপোর্ট পাওয়ার পর তার সংস্পর্শে থাকা সকল সহকর্মীদের কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

এর আগে গত শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু হয়েছে। করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার পর নমুনা পরীক্ষায় তারও করোনা পজেটিভ আসে। করোনা আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত ২ পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হলো।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ওই পুলিশ সদস্যের নাম নঈমুল হক (৩৮)। তিনি চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বন্দর বিভাগে কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার থানার ফতেয়াবাদ পীর বাড়ি এলাকায়। তিনি স্ত্রী, দুই কন্যা ও এক পুত্রসহ তিন শিশু সন্তান এবং বহু আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

২৪ ঘণ্টা/রাজীব প্রিন্স

এই বিভাগের আরো খবর

Leave A Reply

Your email address will not be published.