bty

নিউজ ডেস্ক: জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম জেলা ও বিভাগীয় কার্যালয়ের নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান পারিচালিত হয়।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার সকাল থেকে চলা তদাকরিমূলক অভিযানে নেতৃত্ব দেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয় এর সহকারী পরিচালক জনাব পাপীয়া সুলতানা লীজা এবং চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান।

নগরের কোতয়ালী, ডবলমুরিং ও পাহাড়তলীর এলাকায় অভিযানে মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য, অননুমোদিত সস, মেয়াদ বিহীন কাটা ঔষধ ও অননুমোদিত ঔষধ ধ্বংস করা সহ সব মিলিয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় মোট ৩১,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

কোতয়ালী থানার রহমতগঞ্জ এলাকার প্রত্যয় প্লাস স্টোরকে মোড়কজাত পণ্যে নিজে মূল্য প্রদান করায় ৩,০০০ টাকা, আবদুস সাত্তার রোডের তানভীর ফ্যামিলি স্টোরকে পণ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা ও মেয়াদোত্তীর্ণ কোমলপানীয় ও অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য সংরক্ষণ করায় ৮,০০০ টাকা, মোমিন রোডের মেসার্স ঝাল বিতানকে অননুমোদিত সস সংরক্ষণ করায় ২,০০০ টাকা, মেসার্স হক স্টোরকে উৎপাদন-মেয়াদ বিহীন পণ্য ও মেয়াদোত্তীর্ণ বোতলজাত আচার শেলফে সংরক্ষণ করায় ৮,০০০ টাকা,

ডবলমুরিং থানার সিডিএ কর্নফুলী মার্কেটের খাজা গরীবে নেওয়াজ স্টোরকে ৫,০০০ টাকা

পাহাড়তলী থানার কাঁচা রাস্তার মাথার জিলানী ফার্মেসিকে মেয়াদবিহীন কাটা ঔষধ ও অননুমোদিত ঔষধ সংরক্ষণ করায় ৫,০০০ টাকা জরিমানাসহ প্রত্যেককে সর্তক করা হয়েছে। জনস্বার্থে এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে থাকবে বলে জানা গেছে।

২৪ঘণ্টা/এন এম রানা