বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের দুই নেতাকে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পরিচয়ে তুলে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া ছাত্র সংগঠনটির আরেকজন নেতার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

এই তিনজনের মধ্যে দুইজন হলেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নেতা আর অন্যজন হলেন সংগঠনটির ঢাবি শাখার নেতা। তাদের মধ্যে কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলাম ও ঢাবি কমিটির সহসভাপতি মো. নাজমুল হুদাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আর সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সোহরাব হোসেনকে খোঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এদের মধ্যে সাইফুল এবং নাজমুল হুদা ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার আসামি (সহযোগী)।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খাঁন রোববার রাতে বিষয়টি জানিয়েছেন।

রাশেদ জানান, আজকে (রোববার) দুপুরে গণসংহতি আন্দোলনের প্রোগ্রাম শেষে জাতীয় প্রেস ক্লাব থেকে সোহরাবের মেসে যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি যাননি। বিকাল ৩টার পর থেকে সোহরাবের কোনো খোঁজ নেই। সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ নিয়েও, তার সন্ধান মেলেনি।

তিনি জানান, তাদের সংগঠনের ঢাবি কমিটির সহসভাপতি নাজমুল হুদা আজকে (রোববার) রাজধানীর মগবাজারে একটি কোম্পানিতে চাকরির ভাইভা দিতে যান। ভাইবা শেষ করে বের হওয়ার পর গেট থেকে ডিবি পরিচয়ে দুপুর ২টার দিকে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

রাশেদ আরও জানান, তাদের সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলামকে রোববার রাত ৮টায় রাজধানীর চানখাঁরপুল থেকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেয়া হয়েছে।

অনতিবিলম্বে এই তিন নেতাকে তার পরিবারের কাছে ফেরত দেয়ার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক।

২৪ ঘণ্টা/রিহাম