চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, সনাতন ধর্মের অনুসারীরা বিশ্বাস করেন দেবী দুর্গা মর্ত্যলোকে অসুর নিধন করে সুর-সত্য-সুন্দর-মঙ্গলের বার্তা প্রদান করে কৈলাষে ফিরে যাচ্ছে। একে আমরা বিসর্জন বা নিরঞ্জন যাই বলিনা কেন সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্তরে চির জাগরুক থাকবেন। তিনি করোনা মহামারী বিনাশে এবারে শারদীয় দুর্গোৎসব সংযম শৃঙ্খলায় শান্তি সম্প্রীতির জয়গান গাওয়া হয়েছে। তার সুর প্রতিদিন প্রতিক্ষণ অনুরণিত হোক।

বিজ্ঞাপন

আজ বিকেলে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে প্রতিমা নিরঞ্জন অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মহানগর পুজা উদ্যাপন কমিটির সভাপতি এডভোকেট চন্দন তালুকদার। সভায় বক্তব্য রাখেন-প্রশাসকের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম, চসিক পুজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি চসিক তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) ঝুলুন কুমার দাশ, মহানগর পুজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শ্রী প্রকাশ দাশ অসিত, লায়ন আশিষ ভট্টাচার্য্য, অধ্যাপক অর্পণ কান্তি ব্যানার্জি, সুমন দেবনাথ, রত্নাকর দাশ টুনু, হিল্লোল সেন, মিথুন মল্লিক, এডভোকেট নটু বিশ্বাস, চসিক পুজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রতন চৌধুরী, রুমকি সেনগুপ্ত।

উপস্থিত ছিলেন-উপ-পুলিশ কমিশনার বন্দর কামরুল ইসলাম, অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার ডিবি আবু বক্কর সিদ্দিক, চসিক উপ-সচিব আশেক রসুল চৌধুরী টিপু, সহকারী প্রকৌশলী অসীম বড়–য়া। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সমীর মহাজন লিটন।

প্রশাসক আরো বলেন, আমাদের দেশে ধর্ম চর্চা আছে, ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি নেই। কিছু কুপম-ুক অশুভ উদ্দেশ্যে ধর্মকে ব্যবহার করে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চায়। তাদের এই অপচেষ্টা আর চালানোর অবকাশ নেই। এখন ধর্ম পরিচয়ে কোন মানুষকে অবহেলা করা যাবে না। সংবিধানের ঘোষণাকে পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তে অর্জিত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক ধারায় ফিরিয়ে নেয়ার কোন সুযোগ নেই। তিনি স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে শৃঙ্খলার সাথে দুর্গা পূজা সম্পন্ন করায় মহানগর পুজা উদ্যাপন পরিষদ ও সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

প্রশাসকের নিকট পৌরকর বাবদ
প্রায় ১৯ লক্ষ টাকার চেক প্রদান প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনকে পৌরকর বাবদ প্রায় ১৯ লক্ষ টাকা পরিশোধ করেছে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়।

আজ রোববার সকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজনের হাতে চেক হস্তান্তরের মাধ্যমে পৌরকরের এই টাকা পরিশোধ করেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালরে রেজিষ্ট্রার খুরশীদুর রহমান।

চেক গ্রহণকালে প্রশাসক বলেন, পৌরকরের ওপর চট্টগ্রামে উন্নয়ন নির্ভর করে। আমি নগরবাসীর ওপর করের বোঝা চাপাতে চাইনা। সরকারি যেসব সংস্থা, প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠনের বকয়ো কর পরিশোধ করলে নগরীর উন্নয়ন কার্যক্রম তরান্বিত করা সম্ভব হবে। এসময় প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলম, ৫নং রাজস্ব সার্কেলের কর কর্মকর্তা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

২৪ ঘণ্টা/রিহাম