শেষ হয়েছে সাকিব আল হাসানের অপেক্ষার প্রহর। অপেক্ষায় ছিলেন তার ভক্ত-সমর্থকরাও।একইসাথে তার জাতীয় দলের সতীর্থরাও নয় কি? দলের সেরা খেলোয়াড়ের অনুপস্থিতিতে যে ১২ মাস কাটিয়েছেন, তা তো স্বস্তিকর ছিল না মুশফিক-সৌম্য-মুস্তাফিজদের জন্য!

বিজ্ঞাপন

বিশ্বসেরার প্রত্যাবর্তনে তাদের যেন তাই হাঁফ ছেড়ে বাঁচার জোগাড়। ঘরির কাঁটা ২৯ অক্টোবর রাত ১২টা স্পর্শ করার আগেই শুরু ক্ষণগণনা। এদিন এক বছরের নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পেয়েছেন সাকিব। তার প্রত্যাবর্তনের মুহূর্তকে আরও রাঙিয়ে তুললেন সতীর্থরা, স্বাগতম আর শুভেচ্ছা বার্তায়।

সাকিব মাঠে ফেরার অনুমতি আজ থেকে। ১৫ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ দিয়ে দীর্ঘ এক বছর পর ফিরবেন প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে। সতীর্থ-বন্ধু মুশফিকুর রহিম নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হওয়ার সাথে সাথেই সাকিবকে নিয়ে দিয়েছেন আবেগঘন এক বার্তা।

মুশফিক বলেন, ‘আমরা একসাথে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলাম, এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। গত বছর যখন জানলাম এক বছর ড্রেসিংরুম ভাগাভাগি করতে পারব না, হতবুদ্ধি হয়ে পড়েছিলাম। অনেক দারুণ স্মৃতির সাক্ষী আমরা। দুঃসময়ে একে অপরের পাশে থেকেছি। এই এক বছর শেষ হওয়ায় আমি অনেক খুশি। একসাথে মাঠে নামবো। সবসময় তুমি চ্যাম্পিয়নের মতই প্রত্যাবর্তন করেছ আর এবারো আমি তোমার ম্যাচ সাথে আরও ম্যাচ জেতানো পার্টনারশিপ গড়ে দেশকে খুশি করতে চাই, ইনশাআল্লাহ্‌।’

রেস্তোরাঁর ব্যবসায় সাকিবের অংশীদার ইমরুল কায়েস। আঞ্চলিক কথ্য ভাষায় তিনি লিখেছেন, ‘আবার আইয়া পড়ো।’ নিজেদের রেস্তোরাঁয় বসে আছেন এমন একটি ছবিও সংযুক্ত করেছেন। মুস্তাফিজুর রহমান, সৌম্য সরকার, আবু জায়েদ রাহী, নাঈম হাসান, মেহেদী হাসান, কামরুল ইসলাম রাব্বি, আবু হায়দার রনিরা সাকিবকে স্বাগত জানিয়েছেন।

সদ্য সমাপ্ত বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালে আলো ছড়ানো পেসার সুমন খান সাকিবের প্রত্যাবর্তনের ক্ষণগণনা শুরু করেন নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার আগেই। নুরুল হাসান সোহান জানিয়েছেন, সাকিবকে মাঠে দেখার তড় সইছে না। তাসকিন আহমেদ লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, সাকিব ভাই ফিরেছে।’ লিটন কুমার দাস সাকিবকে ‘কিংবদন্তি’, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ‘রাজা’ এবং আকবর আলি ‘বিশ্ব ক্রিকেটের রাজপুত্র’ হিসেবে সাকিবকে অভিহিত করেছেন।

২৪ ঘণ্টা/রিহাম