নওগাঁর মান্দায় দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে অপর একটি ট্রাকের ধাক্কার দুই পান ব্যবাসয়ী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ৫ জন আহত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

আহতদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার ভোর ৫টার দিকে উপজেলার নওগাঁ-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের শহীদ কামরুজ্জামান টেক্সটাইল কলেজের পাশে জোনাকি হোটেলের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গমারী উপজেলার আংগারিয়া গ্রামের শরৎ চন্দ্র বর্মনের ছেলে দীনেশ চন্দ্র (৩৮) ও দীনবন্ধুর ছেলে দীনেশ বর্মন (৩৬)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মান্দা উপজেলার নওগাঁ-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের শহীদ কামরুজ্জামান টেক্সটাইল কলেজের পাশে জোনাকি হোটেলের সামনে একটি বালুবাহী ট্রাক দাঁড়ানো ছিল। অপরদিকে কুড়িগ্রাম থেকে খড়বোঝাই একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট-২৪-১৩১০) রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার মচমইল হাটে পান কেনার জন্য যাচ্ছিল।

আবহাওয়া কুয়াশাচ্ছন্ন থাকায় ভোর ৫টার দিকে খড়বোঝাই ট্রাকটি থেমে থাকা ট্রাকটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে আঘাত করা ট্রাকটির সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায়। ট্রাকের সামনে চালকের পাশে বসে থাকা পান ব্যবসায়ী দীনেশ চন্দ্র ও দীনেশ বর্মন ঘটনাস্থলেই মারা যায়।
এসময় চালক ও ট্রাকের ওপর থাকা আরও চারজন আহত হয়। ট্রাকচালক শিপন আলীকে উদ্ধার করে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং বাকিদের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

জানা গেছে, পান ব্যবসায়ীরা কুড়িগ্রাম থেকে খড় নিয়ে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার মচমইল হাটে নিয়ে যান। হাট থেকে ফেরার পর পান কিনে আবার কুড়িগ্রামে ফিরে যান।

মান্দা থানার ওসি শাহিনুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, দুর্ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছেন। আহত অন্যদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

২৪ ঘণ্টা/রিহাম