খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : জেলার গুইমারা এলাকার জননন্দিত ব্যক্তিত্ব ও সমাজসেবক মংসাজাই চৌধুরী’র ৩২-তম স্মরণ বার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ উপলক্ষে জেলা শহরের মিলনপুরস্থ ‘মারমা উন্নয়ন সংসদ (মাউস)’-এর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সভায় মংসাজাই চৌধুরী’র জীবনের অসমাপ্ত চিন্তা ও দর্শনকে কাজে লাগিয়ে মারমা সমাজের নতুন প্রজন্মকে পথ চলার আহ্বান জানান।

‘মাউস’র কেন্দ্রীয় সভাপতি মংপ্রু চৌধুরী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মংসাজাই চৌধুরী’র সন্তান ও সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ‘মাউস’র সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি চাইথোঅং মারমা, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা মংক্যচিং চৌধুরী এবং মানিকছড়ি উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ম্রাগ্য মারমা।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ক্যজরী মারমা’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় মংসাজাই চৌধুরী’র জীবন ও কর্ম নিয়ে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন, বিশিষ্ঠ লেখক ও গবেষক অংসুই মারমা।

সভা শুরুর আগে মংসাজাই চৌধুরী’র প্রতিকৃতিতে পুস্পাঞ্জলি, প্রদীপ প্রজ্জলন ছাড়াও তাঁর স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

উল্লেখ্য, উল্লেখ্য গুইমারা অঞ্চলের দুটি মৌজার হেডম্যান ও গুইমারা বাজারের বাজার চৌধুরী মংসাজাই চৌধুরী ১৯৩৬ সালের ২৩ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন এবং ১৯৮৯ সালের ১৩ জানুয়ারি অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের দুই সহযোগীসহ গুমের শিকার হন।

২৪ ঘণ্টা/প্রদীপ চৌধুরী