রিয়ার অ্যাডমিরাল এম শাহজাহান চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ (চবক) এর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন। এর আগে, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। মোংলা বন্দরে যোগদানের আগে তিনি বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের উপ-মহাপরিচালক ছিলেন। তারও আগে, তিনি চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য (হারবার) ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের বিদায়ী চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এসএম আবুল কালাম আজাদকে বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে প্রত্যাবর্তনের লক্ষ্যে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগে ন্যস্ত করা হয়েছে।

বুধবার সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রেষণ-২ অধিশাখা থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে বিষয়টি জানানো হয়। এতে স্বাক্ষর করেন উপসচিব মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান (এনবিপি, এনডিসি, পিএসসি) ১৯৮৪ সালের ২৪ জুলাই বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে যোগদান করেন এবং ১৯৮৭ সালের ২৪ জুলাই কমিশন প্রাপ্ত হন। চাকরি জীবনে তিনি বিভিন্ন সময়ে নৌবাহিনীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন।

নতুন চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান (এনবিপি, এনডিসি, পিএসসি) ১৯৮৪ সালের ২৪ জুলাই বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে যোগদান করেন এবং ১৯৮৭ সালের ২৪ জুলাই কমিশনপ্রাপ্ত হন। মিরপুরে জাতীয় ডিফেন্স কলেজ ও ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে স্নাতক ১৯৮৭ সালের ১ জানুয়ারি বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে কমিশন লাভ করেন। তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্টাডিজ ডিফেন্সে স্নাতকোত্তর এবং স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

এম শাহজাহান ‘পোর্ট অফ শিপিং এবং শিপিংয়ের বাংলাদেশের অর্থনৈতিক বিকাশ’ বিষয়ক থিসিস নিয়ে গবেষণা করেন। তার কর্মজীবনে দেশে এবং বিদেশে বেশ কয়েকটি পেশাদার কোর্স করেন ও বেশ কয়েকটি যুদ্ধজাহাজের কমান্ড দিয়েছিলেন।

তিনি নৌ সদর দফতরে ডিরেক্টর ব্লু ইকোনমি, ডেপুটি ড্রাফটিং কমান্ডার, স্টাফ অফিসার (নৌ নিয়োগ) -১ এবং নৌ সদর দফতরে বিভিন্ন অধিদফতরে কর্মচারী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

ডেপুটেশন ছাড়াও তিনি নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অধীনে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (হারবার ও মেরিন), জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয়ে ব্লু ইকোনমি সেলের সদস্য এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কোস্টগার্ড সদর দফতরে বঙ্গদেশ কোস্ট গার্ডের উপ-মহাপরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

জাতিসংঘ মিশনের অধীনে সামরিক পর্যবেক্ষক দলের টিম লিডার এবং হাইতিতে জাতিসংঘ মিশনে ব্যানসন -২ এ জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী কর্মকর্তা হিসাবে কাজ করেছেন।