কচুরিপানা আবর্জনায় ভরে যাওয়া মধ্যম রামপুরা যাত্রা মহাজনের বাড়ির পুকুরটি আজ বৃহস্পতিবার সকালে পরিস্কার করলো চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। গত ২০ জানুয়ারি বুধবার চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদীতে এই পুকুরটির ছবি প্রকাশিত হলে, তা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজনের দৃষ্টিগোচর হয়।

বিজ্ঞাপন

জনস্বার্থে এই পুকুরটি প্রশাসক পরিস্কারের নির্দেশ দেয়ায় কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগ আজ পরিস্কার করে তা ব্যবহার উপযোগী করে দেয়।

পরিস্কার অভিযান কার্যক্রম তদারকি করেন কর্পোরেশনের উপ প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদ আলম চৌধুরী।

মোরশেদ আলম চৌধুরী জানান গত ২০ জানুয়ারি দৈনিক আজাদীতে প্রকাশিত ছবি সম্বলিত কচুরিপানা ও আবর্জনা ভরা পুকুরটি সংবাদ প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন মহোদয়ের চোখে পড়লে তিনি তা দ্রুততম সময়ের মধ্যে পরিস্কারের ব্যবস্থা নিতে বলেন। তাই আজ আমরা পুকুরটি পরিস্কারের ব্যবস্থা করলাম।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এতোদিন নগরীর বিভিন্ন খাল নালা পরিস্কার করছিলো। এবার পুকুর পরিস্কারের উদ্যোগ নেয়া প্রসঙ্গে প্রশাসক ফোনে চসিকের জনসংযোগ শাখাকে জানান, পানির অপর নাম হলো জীবন। আর সেই পানি যদি দূষিত হয় তাহলে জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়ে। পানির দূষণ থেকে পেটের পীড়া ডায়রিয়া, টায়ফয়েডসহ নানা রোগ বালাই দেখা দিতে পারে। তাই পুকুরটি পরিস্কারের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তাছাড়া নগরীর অনেক এলাকায় এখনো সুপেয় পানির সংকট রয়েছে। নগরীর সমুদ্র উপকূলীয় এলাকাগুলোতে এখনো লবনাক্ত পানি ব্যবহার ও পান করে। তাই এই পুকুরটি পরিস্কার করে ব্যবহার উপযোগী করা হলো। আশা করি যাত্রা মোহনের বাড়ির বাসিন্দারা নিজেদের প্রয়োজনে পুকুরটি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখবেন।