আজ জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের করোনা ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সবার প্রথমে টিকা নিয়েছেন টাইগার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার। তার পরে দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে টিকা নিয়েছেন ওয়ানডে দলপতি তামিম ইকবাল।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০ টায় রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে এই কার্যক্রম শুরু হয়। এখন টিকা নেয়ার অপেক্ষায় আছেন তাসকিন আহমেদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাসিম আহমেদ ও নাঈম শেখ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের দেয়া তথ্যমতে, বৃহস্পতিবার ও শনিবার শুধুই নিউজিল্যান্ডে সিরিজ খেলতে যাওয়া জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ভ্যাকসিন দেয়া হবে। দুই দিনে ৩৬ ক্রিকেটারকে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনা হবে।

আজকে টিকা গ্রহণ করছেন মোট ২৮ ক্রিকেটার। বাকিরা আগামী পরশু নেবেন। তবে কোনো ক্রিকেটার ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহী নন এমন তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায় জাতীয় দলের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো, পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন, ব্যাটিং কোচ জন লুইস, ফিজিও জুলিয়ান ক্যালেফাতে, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ও ট্রেনার নিকোলাস ট্রেভর লিকে টিকা নিতে হাসপাতালে আসেন।

এরপর একে একে হাসপাতালে প্রবেশ করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের(বিসিবি) মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস, সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন, অপারেশন ম্যানেজার সাব্বির খান ও প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী। তাদের সঙ্গে সৌম্য সরকারকেও টিকা নেবার জন্য হাসপাতালে আসতে দেখা যায়। এরপর আসেন মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ ও তামিম ইকবাল। বাকি ২২ ক্রিকেটার পর্যাক্রমে আসবেন এবং প্রাণঘাতী করোনার প্রতিরোধক টিকা নেবেন।