চবির ভাঙচুরের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

চবি প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম ও অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০ টায় এ ভর্তি কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. শিরীণ আখতার।

বিজ্ঞাপন

ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ১২ এপ্রিল বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়েছে। চলবে ৩০ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত।

গতবারের ন্যায় এবারও ৪টি ইউনিট ও ২টি উপ–ইউনিটের মাধ্যমে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন হবে। এবারও ৪৮টি বিভাগ ও ৫টি ইনস্টিটিউটে ৪ হাজার ৯২৬টি আসনের জন্য শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। এর মধ্যে সাধারণ আসন ৪ হাজার ১৮৯টি ও কোটা ৭৩৭টি। ভর্তির আবেদনের জন্য ইউনিট ও উপ-ইউনিট প্রতি একজন শিক্ষার্থীকে ৫৫০ টাকা ফি দিতে হবে।

উপাচার্য তার বক্তব্যে বলেন, প্রথমবারের মতো নিজেদের তৈরিকৃত সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ভর্তি কার্যক্রম উদ্বোধন হলো। এ কার্যক্রম এর ফলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করতে পারবে।

এছাড়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চবি ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর এস এম সালামত উল্যা ভূঁইয়া, চবি রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফসর এস এম মনিরুল হাসান এবং আইসিটি সেলের পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ খাইরুল ইসলাম প্রমূখ।

চার ইউনিটে যা যা থাকছেঃ-

‘এ’ ইউনিটের অধীনে রয়েছে চারটি অনুষদ। এগুলো হলো- বিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, ইঞ্জিনিয়ারিং ও মেরিন সায়েন্সেস অ্যান্ড ফিশারিজ অনুষদ। এই চার অনুষদে মোট সাধারণ আসন ১ হাজার ২১৪টি। আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) মোট জিপিএ ৮.০০।

কলা ও মানববিদ্যা অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটে উচ্চমাধ্যমিকে উত্তীর্ণ সব গ্রুপের শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ ৮.০০। ‘বি’ ইউনিটে (নাট্যকলা, চারুকলা ও সংগীত বিভাগ ব্যতীত) মোট সাধারণ আসন ১ হাজার ২২১টি।

সংগীত, চারুকলা ও নাট্যকলা বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের আলাদাভাবে বি-১ ইউনিটে আবেদন করতে হবে। এই উপ–ইউনিটে মোট সাধারণ আসন ১২৫টি।

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটে মোট সাধারণ আসন ৪৪২টি। এই ইউনিটে আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা থাকতে হবে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) মোট জিপিএ ৮.০০। এখানে বিভাগ রয়েছে ছয়টি।

অন্যদিকে সব গ্রুপের শিক্ষার্থীরাই ‘ডি’ ইউনিটে পরীক্ষা দিতে পারবেন। এখানে সমাজবিজ্ঞান অনুষদের নয়টি বিভাগ, আইন অনুষদের অধীনে থাকা আইন বিভাগ, ব্যবসায় প্রশাসনের অনুষদের সব বিভাগ, জীববিজ্ঞান অনুষদের ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা এবং মনোবিজ্ঞান বিভাগ রয়েছে। এই ইউনিটে আবেদনের যোগ্যতা হিসেবে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) মোট জিপিএ ৭.৫০ থাকতে হবে।

এছাড়া শিক্ষা অনুষদভুক্ত ডি-১ উপ–ইউনিটে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের আলাদাভাবে আবেদন করতে হবে। আবেদনের যোগ্যতা একই।

ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচীঃ- বি ইউনিট ২২ ও ২৩ জুন, ডি ইউনিট ২৪ ও২৫ জুন, এ ইউনিট ২৮ ও ২৯ জুন, সি ইউনিট ৩০ জুন এবং বি১ ও ডি১ পহেলা জুলাই।

উল্লেখ্য যে, ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত সকল তথ্য ও পরবর্তী আপডেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি ওয়েবসাইটে (admission.cu.ac.bd) জানা যাবে।

২৪ ঘণ্টা/মেহেদি