মনোনয়ন প্রাপ্তিতে বিজয়োল্লাস. মহাসড়কের সীতাকুণ্ড তীব্র যানজট

 কামরুল ইসলাম দুলু সীতাকুন্ড প্রতিনিধি |  বুধবার, অক্টোবর ১৩, ২০২১ |  ৮:১১ অপরাহ্ণ
24ghonta-google-news

প্রায় এক সপ্তাহ সময় ধরে ঢাকায় অবস্থান করে সীতাকুণ্ড উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের একক প্রার্থী মনোনিত হয়ে স্ব স্ব এলাকায় ফিরছেন প্রার্থীরা। এমন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার বিকালের পর থেকে স্ব স্ব এলাকায় নৌকা প্রতিকের প্রার্থীরা নেতাকর্মীরা মহাসড়কে জুড়ো হতে থাকে বিশাল বিশাল শোডাউন নিয়ে। প্রার্থীরা তাদের নিবার্চনী এলাকায় মহাসড়ক হয়ে গাড়ি থেকে নামামাত্র নেতাকর্মীরা মহাসড়ক দখল করে নৌকার মনোনয়ন প্রাপ্তিতে উৎসবে মেতে উঠেন প্রার্থী ও তাঁর নেতাকর্মীরা। এ সময় মহাসড়কে চট্টগ্রামুখি লাইনে দূরপাল্লার গাড়িগুলো আটকা পড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

পরে হাইওয়ে পুলিশ স্ব স্ব ঘটনাস্থলে গিয়ে নেতাকর্মীদের অনুরোধ করে মহাসড়ক থেকে নামিয়ে দিলে ধীরে ধীরে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হয়ে পড়ে। এসময় তীব্র যানজটে গাড়িতে আটকা পড়ে শত শত দূর-দূরান্তের মানুষ। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার ওসি মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন,“ঢাকা থেকে প্রার্থীরা আসার খবরে মহাসড়কে স্ব স্ব এলাকার নেতাকর্মীরা জুড়ো হওয়ার কারণে খানিকটা যানজট লেগে যায়। অবশ্যই পরে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠিয়ে নেতাকর্মীদের অনুরোধ করলে উনারা সড়ক থেকে নেমে পড়ার পর পর গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হয়ে পড়ে।” উল্লেখ্য, সীতাকুণ্ড উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের সৈয়দপুর থেকে সলিমপুর পুরোটাই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক মাঝ দিয়ে অতিবাহিত হয়েছে। নৌকা প্রতিকের বিজয়ী প্রার্থীরা স্ব স্ব এলাকার নেতাকর্মীরা মহাসড়কে অবস্থান করার কারণে এই যানজট। নৌকা প্রতিকের প্রার্থীরা হলেন ১নং সৈয়দপুর ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম নিজামী, ২নং বারৈয়াঢালা বর্তমান চেয়ারম্যান রেহান উদ্দিন রেহান, ৪নং মুরাদপুর ইউপিতে নতুন মুখ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এস.এম রেজাউল করিম বাহার, ৫নং বাড়বকুণ্ড ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান সাদাকাত উল্লাহ মিয়াজী, ৬ নং বাঁশবাড়িয়া ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত আলী জাহাঙ্গীর, ৭নং কুমিরা ইউপিতে মোরশেদুল আলম চৌধুরী , ৮নং সোনাইছড়ি ইউপিতে মো.মনির আহমেদ, ৯নং ভাটিয়ারী ইউপিতে মো. নাজিম উদ্দিন ও ১০ নং সলিমপুরে বর্তমান চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন আজিজ। উল্লেখ্য, এই নিউজ লিখা পর্যন্ত (রাত ৮টা) মহাসড়কে যানজটে আটকা ছিলেন এ প্রতিবেদক।

24ghonta-google-news
24ghonta-google-news