মিরসরাইয়ে ১৩ বছরের কিশোরী অপহরণ! মামলা নেয়নি থানা

  |  রবিবার, মে ১৫, ২০২২ |  ৬:১৩ অপরাহ্ণ
মিরসরাই,কিশোরী, অপহরণ, মামলা,থানা
24ghonta-google-news

মিরসরাইয়ে ফারহানা (ছদ্মনাম) নামে ১৩ বছরের এক কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। কিশোরী স্থানিয় একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

স্থানীয় বখাটে ফিরোজ খান প্রকাশ মাসুম (২০) তাকে অপহরণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই শিক্ষার্থীর পরিবার। রবিবার (১৫ মে) সকাল ৯টায় উপজেলার ১০ নং মিঠানালা ইউনিয়নের পশ্চিম মিঠানালা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ফিরোজ খান মাসুম একল এলাকার মাহফুজুর রহমানের ছেলে।

কিশোরীর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, বখাটে ফিরোজ খান তার অবুঝ কন্যাকে বিভিন্ন সময় উত্তক্ত করতো। গত ২৩ এপ্রিল রাত ৯টায় ফারহানা কিশোরী প্রাকৃতিক ডাকে সাড়ে দিতে ঘর থেকে বের হলে ফিরোজ খান তার মুখ চেপে ধরে বাড়ির পাশ্ববর্তী বাগানে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে ও মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে।

ধর্ষণের অভিযোগে কিশোরীর পিতা ফারুক হোসেন অভিযুক্ত ফিরোজ খানের বিরুদ্ধে মামলা করতে মিরসরাই থানার শরণাপন্ন হলে পুলিশ মামলা না নিয়ে আদালতের সরণাপন্ন হতে পরামর্শ দেয়।

পরবর্তীতে গত ২৮ এপ্রিল কিশোরীর মা চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর আদালতে ফিরোজ উদ্দিন প্রকাশ (মাসুম) কে আসামী করে মামলা (নং-১৩৪/২০২২) দায়ের করেন। মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

কিশোরীর মা জানান, আদালতে মামলা করার পর ফিরোজ আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে। শনিবার (১৪ মে) রাতে সে আমাদের বাড়িতে গিয়ে তার সাথে ফারহানাকে বিয়ে দেওয়ার জন্য প্রস্তাব দেয়। অন্যথায় তাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকী দেয়।

এরপর রবিবার (১৫ মে) আমার অবুঝ মেয়েকে বাড়িতে কোথাও খুঁজে পাইনি। এঘটনায় মিরসরাই থানায় মামলা করতে আসলে পুলিশ অদৃশ্য কারণে মামলা না নিয়ে নিঁখোজ ডায়েরী (নং-৬২৫) নেয়। মেয়েকে খুঁজে দিতে ও বখাটে ফিরোজ খানের শাস্তির জন্য তিনি আইনশৃঙ্খালা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করেন।

মিরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ কবির হোসেন বলেন, একজন মহিলা এই ধরনের একটি অভিযোগ নিয়ে এসেছেন বলে শুনেছি। যে টুকু জেনেছি ওটা প্রেম জনিত ঘটনা। তবে বিস্তারিত আমি এখনো জানিনা। বিষয়টি বিস্তারিত জেনে প্রয়োজনীয় মামলা রুজু পূর্বক উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

২৪ ঘন্টা/আশরাফ উদ্দিন/রাজীব

24ghonta-google-news
24ghonta-google-news